শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৩০ পূর্বাহ্ন

কওমি মাদ্রাসায় মিলাদুন্নবী উদযাপনের দাবি গাউছিয়া কমিটির

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
  • আপডেট সময়: বুধবার, ৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৯৪ বার পঠিত:

রাষ্ট্রীয়ভাবে সরকার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর জশনে জুলুসকে স্বীকৃতি দেওয়াই কওমি আকিদা ভিত্তিক মাদ্রাসা গুলোকে মিলাদুন্নবী জুলুস পালনের দাবি করেছেন গাউসিয়া কমিটির চট্টগ্রাম উত্তর জেলা শাখার প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদকআলহাজ্ব আহসান হাবীব চৌধুরী।

বুধবার (৬ অক্টোবর) বাদে আসর চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে মাহে রবিউল আউয়ালকে স্বাগত জানিয়ে গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ উপজেলা পশ্চিম শাখার উদ্যোগে সংগঠনের সভাপতি আলহাজ্ব মুহাম্মদ হারুন সওদাগরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্বাগত র‍্যালীর মধ্যে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় পবিত্র জশনে জুলুসকে রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতি প্রদান করায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি। তিনি আরো বলেন, সরকার যেহেতু ১২ই রবিউল আউয়ালকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ঘোষণা দিয়েছে সেহেতু দেশের সকল মুসলমান মিলাদুন্নবী পালন করা ঈমানী দায়িত্ব। তাই রাষ্ট্রীয় ঘোষণা কওমি মাদ্রাসা অমান্য করার কোন সুযোগ নাই। আমরা গাউসিয়া কমিটির পক্ষ থেকে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানাচ্ছি কওমিরা যেন মিলাদুন্নবী উদযাপন করেন।

আল্লামা গাজী ইমাম আজিজুল হক শেরে বাংলা (রহ.) এর মাজার শরীফ চত্তর থেকে স্বাগত র‍্যালি বের হয়ে উপজেলা পরিষদ চত্বরে গিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দিয়ে পৌরসভা এলাকার প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় মাজার শরীফে এসে শেষ হয়। র‍্যালি শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণে মিলাদ-কিয়াম ও মুনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, মহানবী হযরত মুহাম্মদ মোস্তফা সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের শুভাগমন মানবজাতিসহ সমস্ত জগতের জন্য আল্লাহপাকের বড় অনুগ্রহ স্বরূপ। তাঁর শুভাগমনকে ঘিরে খুশি ও আনন্দোৎসব করা ঈমানদারিতার লক্ষণ। আল্লাহর নিয়ামতের শোকরিয়া প্রকাশই হচ্ছে জশনে জুলুসে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.)। এটি নতুন কোনো আচার উৎসব নয়, বরং আল্লাহ স্বয়ং নবী রাসূল (দ.) ও ফিরিশতাদের নিয়ে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) পালন করেছেন।

বক্তারা দেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতির নেতৃত্বে রাজধানীতে আগামী ১২ রবিউল আউয়াল জশনে জুলুস বের করার আহবান জানান এবং রবিউল আউয়াল মাসে সরকারি/বেসরকারি চাকুরীজিবীদের ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) উৎসব ভাতা দেওয়ার জোরালো দাবীও জানান। পরে সালাত সালাম শেষে মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ এবং বিশ্বের নিপীড়িত মানবতার পরিত্রাণ কামনায় মুনাজাত পরিচালনা করেন।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, এস.এম.রফিকুল হাসান, মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, আলহাজ্ব সৈয়দ আহমদ হোসেন, আলহাজ্ব মোহাম্মদ আবদুল জব্বার, আলহাজ্ব মোহাম্মদ আবুল কালাম, কাজী সৈয়দ মুহাম্মদ আবু সাঈদ, মাওলানা সৈয়দ মুনির রহমান খসরু, আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইউসুফ, মোহাম্মদ এনামূল হক ছিদ্দিকী, মোহাম্মদ আবদুল মাবুদ আইয়ুব, এডভোকেট মোখতার আহমেদ ছিদ্দিকী, মোহাম্মদ রোকন উদ্দীন চৌধুরী।

এতে উপস্থিত ছিলেন, সৈয়দ মুহাম্মদ আবু তালেব, মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, মাওলানা আবদুল মালেক, মোহাম্মদ কামাল পাশা চৌধুরী, মাওলানা কাজী মোহাম্মদ আবদুল করিম, মাওলানা মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন, মাওলানা মুহাম্মদ ইউনুছ হেলালী, মাওলানা মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম, মোহাম্মদ ফজল করিম মাষ্টার, ডাঃ মোহাম্মদ এরশাদ, এম. ছগির আহমদ, মোহাম্মদ অছি উদ্দীন, সৈয়দ মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীন, মোহাম্মদ নুর খাঁন, মোহাম্মদ রকি, মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন রুবেল, মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান, মোহাম্মদ শহিদ ও মোহাম্মদ হাসান রেজা প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ দেখতে:
dailybhorerbangla website logo
© All rights reserved © 2020 Dailybhorerbanglanews.Com
Design & Development BY Hostitbd.Com