শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:০৮ পূর্বাহ্ন

সিআইপি মনোনীত হওয়ায় দুই রেমিটেন্স যোদ্ধাকে সংবর্ধনা

মো. সাহাবুদ্দীন সাইফ, হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময়: সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৯৪ বার পঠিত:

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক সিআইপি মনোনীত হওয়ায় দুইজন রেমিটেন্স যোদ্ধাকে সংবর্ধনা দিয়েছেন চট্টগ্রামের হাটহাজারীবাসী।

রোববার (২৬শে ডিসেম্বর) বিকেল ৫টার দিকে হাটহাজারী পৌরসভার বাসস্ট্যান্ড এলাকার হোটেল আল-জামান সেমিনার হলে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব মঞ্জরুল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত দুই সিআইপিরা হলেন, টানা ছয় বারের মত সিআইপি প্রাপ্ত দক্ষিণ পাহাড়তলি এলাকার মোহাম্মদ সেলিম ও উপজেলার ধলই ইউনিয়নের হাজী মোহাম্মদ সেলিম।

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক স্কুল বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন মিন্টু ও উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক জি এম জিসানের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও জাতীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এম.পি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব ইউনুচ গণি চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ শাহিদুল আলম, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শাহানেওয়াজ হোসেন চৌধুরী, মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রফিকুল ইসলাম।

এতে অন্যান্যদের মধ্য বক্তব্য রাখেন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মোহাম্মদ হোসেন মাস্টার, ধলই ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর জামান, ফরহাদাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিস তালুকদার, ফতেপুর ইউপির নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান জায়নুল আবেদীন, বুড়িশ্চর ইউপির নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান জাহেদ হোসাইন, শিকারপুর ইউপির নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান এম এ খালেক, উত্তর মাদার্শার চেয়ারম্যান মঞ্জুর হোসেন চৌধুরী মাসুদ, উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্মসাধারণ সম্পাদক শওকত আনাম সোহেল।
এ ছাড়াও প্রবাসীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, মীর আহম্মদ, শেখ মোহাম্মদ ইউছুপ ও আনসারুল্লাহ।

এসময় বক্তারা বলেন, দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতিতে রেমিটেন্স যোদ্ধার বিকল্প নেই। অথচ সে যোদ্ধারাই প্রতিনিয়ত অবহেলিত। তাদের তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করা হয়। বর্তমানে বিমানের টিকেট ১লক্ষ টাকার উপরে যা একজন রেমিটেন্স যোদ্ধার জন্য কতটুকু কস্টের একমাত্র তারাই বুঝে। আজকে প্রশ্ন জাগে যারা প্রবাসের বিভিন্ন দপ্তরের দায়িত্বে নিয়োজিত তারা কি করছে? বক্তারা দ্রুত অতিরিক্ত বিমান ভাড়ার বিষয়টি সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ দেখতে:
dailybhorerbangla website logo
© All rights reserved © 2020 Dailybhorerbanglanews.Com
Design & Development BY Hostitbd.Com